অমৃত কলা মহোৎসব

স্বাধীনতার পঁচাত্তর বছরে আজাদী কা অমৃত মহোৎসব উদযাপনের অঙ্গ হিসেবে ইন্টারন্যাশনাল আর্টস্ অ্যান্ড কালচারাল ফাউন্ডেশন , ব্যাঙ্গালোর, আয়োজন করছে ‘অমৃত কলা মহোৎসব‘। শাস্ত্রীয় নৃত্যের মাধ্যমে ভারতবর্ষের বিভিন্ন রাজ্যের শিল্পের মধ্যে সংযোগ সাধন ও বিকাশের লক্ষ্যে, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।


আগরতলা ও গৌহাটির পর কলকাতায় হয়ে গেল এই মহোৎসব। ১৮ সেপ্টেম্বর, রবিবার, ভারত সরকারের সংস্কৃতি মন্ত্রক ও ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস -আইসিসিআর এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই মহোৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সংস্কার ভারতী, কলকাতার কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক নীলাঞ্জনা রায়, আইসিসিআর এর আঞ্চলিক কার্যালয়, পূর্ব-এর প্রধান এবং অধিকর্তা মীনাক্ষি মিশ্র এবং আইসিসিআর আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রোগ্ৰাম অধিকর্তা আর পার্থিবন, ইন্টার ন্যাশনাল আর্টস ও কালচারাল ফাউন্ডেশনের অধিকর্তা শ্রীবৎস সান্ডিল্য, সঞ্চিতা ডান্স ফাউন্ডেশনের কর্ণধার সঞ্চিতা ভট্টাচার্য প্রমুখ।

এই অনুষ্ঠানে জাতীয় সঙ্গীতের দ্বিতীয় থেকে পঞ্চম স্তবক ওড়িশি , কত্থক, কুচিপুড়ি ও ভরতনাট্যম নৃত্যসহযোগে পরিবেশন করা হয়। এছাড়াও সাহিত্য সম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘বন্দে মাতরম’, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী রচিত ‘বিজয়া দশমী’ এবং বীর সাভারকর রচিত ‘জয়স্তুতে’ প্রভৃতি শাস্ত্রীয় নৃত্য সহযোগে পরিবেশন করা হয়।

ইন্টারন্যাশনাল আর্টস্ অ্যান্ড কালচারাল ফাউন্ডেশনের অধিকর্তা শ্রীবৎস সান্ডিল্য জানান, কর্ণাটক ও অন্যান্য রাজ্যে তাঁর এই উপস্থাপনা সমাদৃত হয়েছে।

Leave a Reply